বুধবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভ্যাকসিনের আরিষ্কারক গাজীপুরের কৃতি সন্তান। করোনার প্রভাবে শহর ছেড়ে গ্রামে ফিরছে মানুষ; ঝুঁকছে কৃষি চাষে, চাঙ্গা হচ্ছে গাজীপুরের গ্রামীণ অর্থনীতি। শ্রীপুরে ২০ বছরেও রাস্তাটির কাজ হয়নি অসংখ্য অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে ‘স্বপ্নদ্রষ্টা’ সংগঠনের খাদ্যদ্রব্য উপহার বিতরণ। ঈদ কার্ড শ্রীপুরে রুট স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ঈদ সামগ্রী বিতরণ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ব্যবহারে করণীয় ও বর্জনীয়। এমসি বাজারে ইজারাদার এর বিরুদ্ধে অভিযোগ। পটকা গ্রামে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে আক্রমণ এর অভিযোগ। শ্রীপুর বরমী শীতলক্ষ্যা নদীতে সাঁতার কাটতে গিয়ে বালুর ড্রেজারের নিচে পরে হাফেজ ছেলে নিহত।
করোনা পরিস্থিতি ভালো না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে-প্রধানমন্ত্রী

করোনা পরিস্থিতি ভালো না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে-প্রধানমন্ত্রী

করোনাভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, যখন করোনার প্রকোপ থাকবে না, তখনই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে।

আজ সোমবার গণভবন থেকে রাজশাহী বিভাগের আট জেলার মাঠ প্রশাসনের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মতবিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা এখন স্কুল–কলেজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলব না। অন্তত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত স্কুল–কলেজ সবই বন্ধ থাকবে, যদি করোনাভাইরাস অব্যাহত থাকে। যখন এটা থাকবে না, তখনই খুলব।’

Lifebuoy Soap

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কিছু কিছু জীবনযাপন আমাদের আস্তে আস্তে উন্মুক্ত করতে হবে। সেখানেও সবাই নিজেকে সুরক্ষিত রেখেই কাজ করবে।’

মানুষকে বাঁচিয়ে রাখা এবং জীবিকার পথ উন্মুক্ত রাখার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যেসব জায়গায় করোনাভাইরাস বেশি দেখা দেয়নি, ধীরে ধীরে সেই জায়গাগুলো শিথিল করে দিচ্ছি। যাতে মানুষের স্বাভাবিক জীবন অব্যাহত থাকে।’

শেরপুর জেলার ভিক্ষুক নাজিমুদ্দিন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন এবং তাঁর কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘একজন ভিক্ষুক ভিক্ষা করে ১০ হাজার টাকা জমা করেছিল নিজের ঘর ঠিক করার জন্য। ছেঁড়া একটি পাঞ্জাবি গায়ে। ঘরে খাবারও ঠিকমতো নেই। কিন্তু তারপরও সেই মানুষ ওই ১০ হাজার টাকা তুলে দিয়েছেন করোনাভাইরাসে যাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত, তাঁদের সাহায্যের জন্য। আমি মনে করি, সারা বিশ্বে এটা মহৎ দৃষ্টান্ত তিনি সৃষ্টি করেছেন। এত বড় মানবিক গুণ আমাদের অনেক বিত্তশালীর মাঝেও দেখা যায় না। কিন্তু একজন নিঃস্ব মানুষ, যাঁর কাছে এটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ওই টাকা দিয়ে তিনি অনেক কিছু করতে পারত। কোনো চিন্তা সে করেনি। সেটা তিনি দান করেছেন। এই যে একটা মহৎ উদারতা দেখালেন, বাংলাদেশের মানুষের মাঝে এখনো এই মানবিক বোধটা আছে। কিন্তু সেটা আমরা পাই, যাঁরা নিঃস্ব তাঁদের কাছে। অনেক সময় দেখি, অনেক বিত্তশালী অনেক হা-হুতাশ করেই বেড়ান। কিন্তু তাঁদের নাই নাই অভ্যাসটা যায় না। তাঁদের চাই চাই ভাবটা সব সময় থেকে যায়।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




raytahost-demo
© All rights reserved © 2020
Design by Raytahost